ঈশ্বরগঞ্জে ১১ইউপিতে নৌকা প্রত্যাশী ৯৪ জন

0
44
ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রত্যাশী

ঈশ্বরগঞ্জে ১১ইউপিতে নৌকা প্রত্যাশী ৯৪ জন। সারাদেশে ধাপে ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রথম ধাপে ১১ এপ্রিল নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এপর্যন্ত তৃতীয় ধাপের নির্বাচন সম্পন্ন হলেও ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা হয়নি। এর পরও এ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রার্থীরা বসে নেই।

দেশের বিভিন্ন উপজেলার নির্বাচন শুরুর সাথে সাথে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার সম্ভাব্য মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীরা নৌকার প্রতীকে মনোনয়ন পাওয়ার আশায় স্থানীয় ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সাথে লবিং তদবির শুরু করে দিয়েছেন।

১১ এপ্রিল থেকে ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ১১টি ইউনিয়নের ৯৪জন প্রার্থী নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী হিসেবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ কার্যালয়সহ বিভিন্ন তফতরে জীবন বৃত্তান্ত জমা দিচ্ছেন। সেই সাথে সম্ভাব্য প্রার্থীরা মাঠে জনসংযোগ, মতবিনিময় সভা, শোভাযাত্রা, শোডাউন ও নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্থ সময় পার করছেন। অনেকেই দোয়া ও সমর্থন চেয়ে আগাম পোষ্টারিং করে রাস্তা ঘাট ছেয়ে ফেলেছেন। ইতোমধ্যে সারাদেশে ৩য় ধাপের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচন কমিশন ৪র্থ ও ৫ম ধাপের নির্বাচনী তফসিল ঘোষণাও করেছেন।

কিন্তু ৫ম ধাপের তালিকায়ও ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার নাম না থাকায় প্রার্থীরা হতাশা গ্রস্থ হয়ে পড়েছেন।

আসন্ন নির্বাচনে সকল প্রার্থীরাই নৌকার মনোনয়ন পাওয়ার শতভাগ আশাবাদ ব্যক্ত করে জনগণের কাছে ভোট প্রার্থনা করছেন। উপজেলার গ্রাম-গঞ্জের হাট বাজার ও রাস্তার মোড়ে চায়ের দোকানপাটে সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত পর্যন্ত সাধারণ ভোটাদের মাঝে কোন প্রার্থীর যোগ্যতা কেমন এসব ভালো মন্দের আলোচনা সমালোচনার ঝড় বইছে। প্রার্থীরা ভোটারদের মনজয় করতে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান, মৃত ব্যক্তিদের জানাজায় অংশ গ্রহন করে প্রার্থীতার জানান দিচ্ছেন।

এক তথ্যানুসন্ধানে দেখা যায়, উপজেলা ১১টি ইউনিয়নে আ’লীগের ৯৪ জন প্রার্থীর মাঝে পূর্বে নির্বাচিত নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান রয়েছেন ৭ জন। এবারের নির্বাচনে বিভিন্ন ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ছাত্রলীগ, যুবলীগ তরুন মেধাবী নেতাদেরও প্রার্থী হতে দেখা যাচ্ছে।

১১টি ইউনিয়ন থেকে যারা নৌকার মনোনয়ন প্রত্যার্শা করছেন তারা হলেন-

১নং ঈশ্বরগঞ্জ ইউনিয়ন: আবু হানিফা, হারেছ উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন মন্ডল, এ কে এম হারুনুর রশিদ হারুন, জুয়েল তালুকদার।

২নং সোহাগি ইউনিয়ন: হাবিবুর রহমান, আসাদুজ্জামান আসাদ, কাজী আজিজুল হক, জুলহাস উদ্দিন সুজন শাহ্‌, সারোয়ার হোসেন তৌহিদ মাস্টার, লিটন আল সাগর, আজিজুল হক, আনিসুর রহমান আনিস, কামাল হোসেন, সৈয়দ ইউনুছ, বিল্লাল হোসেন, এ.এস.এম আনোয়ার কবীর সালাম, শাহ গোলাম মোস্তফা গোলাপ।

৩নং সরিষা ইউনিয়ন: মোঃ শাহ জাহান, একরাম হোসেন ভুইয়া, হাবিবুর রহমান, শাখাওয়াৎ হোসেন, আব্দুস সালাম ফকির, শহীদুল ইসলাম মঞ্জু, নূরুল ইসলাম আকন্দ, প্রান্তোষ চন্দ্র বিশ্বাস।

৪নং আঠারবাড়ি ইউনিয়ন: জুবের আলম কবীর রুপক, জসিম উদ্দিন, আহম্মদ উল্লা হোসেন সিদ্দিকী সোহেল, এমদাদুল হক ভূইয়া, আনোয়ার হোসেন সরকার, আবুল কালাম, খাইরুল ইসলাম আকন্দ বিপ্লব, মোস্তাফিজুর রহমান স্বপন, মিজানুর রহমান মিজান, হেলাল উদ্দিন মঞ্জু।

৫নং জাটিয়া ইউনিয়ন: শামছুল হক ঝন্টু, আল আমিন, মাহবুবুল হক শাহ জাহান, আমিনুল হক লাল চান, আলী উসমান, রফিকুল আলম আকন্দ আবুল, অমরেশ সরকার দুলু।

৬নং মাইজবাগ ইউনিয়ন: আবু বাহারুল আলম মজনু, ফরিদ মিয়া, মিজানুর রহমান রতন, খসরু মিয়া, আলমগীর মুনসুর বাবুল, আমিনুল ইসলাম রতন, মিসবাহ উদ্দিন কাঞ্চন মাস্টার, হারেস উদ্দিন সরকার, নুরুল হক স্বপন, শহিদ মিয়া, আবুল কালাম।

৭নং মগটুলা ইউনিয়ন: আবু সালেহ মোঃ বদরুজ্জামান মামুন, মোশাররফ হোসেন আকন্দ রুবেল, রাজিব খান, ডাঃ বোরহান উদ্দিন ভুঁইয়া বোরহান, আব্দুস সালাম আকন্দ, আব্দুল হেলিম, আশকর আলী, আশিক হোসাইন সিরাজ।

৮নং রাজিবপুর ইউনিয়ন: এ.কে.এম. মুদাব্বিরুল ইসলাম, শফিউল্লাহ উজ্জ্বল, এ.এন.এম. শফিউল আলম হিমেল, আব্দুর রাজ্জাক, আশরাফুল ইসলাম চাঁন মিয়া, জাহাগীর আলম, দেলোযার হোসেন দেলু, হারুন অর রশিদ খান ভুট্টু।

৯নং উচাখিলা ইউনিয়ন: শফিকুল ইসলাম শফিক, সাইদুল হক সরকার, সারোয়ার জাহান স্বপন, নজরুল ইসলাম, মিজানুর রহমান মিজান, রফিকুল ইসলাম রফিক, ফারুক আলম, হাসান মাহমুদ, মোস্তাফিজুর রহমান ইমন সরকার।

১০নং তারুন্দিয়া ইউনিয়ন: মাহবুব আলম, ফরিদ খান, হাসান মাহমুদ রানা, মহিউদ্দিন আজাদ মানিক, মোশাররফ হোসেন, আনোয়ার হাসান শামিম।

১১নং বড়হিত ইউনিয়ন: শাহ জালাল, হেলাল উদ্দিন মন্ডল, জিএস মানিক, আব্দুল মান্নান, মশিউর রহমান, কামরুজ্জামান দুখু মিয়া, আজিজুল হক, বীর মুক্তিযোদ্ধা হাবিবুর রহমান, আনোয়ার হোসেন, মাহাবুব আলম ঝিনুক।

ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বুলবুল জানান, আমরা প্রতিটি ইউনিয়নের তৃণমূল নেতাদের বাচাইকৃত প্রার্থীদের তালিকা পেয়েছি। প্রার্থী যতজনই হউক, কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী যারা সৎ যোগ্য, যাদের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ভালো তাদের নামই কেবল আমরা প্রস্তাবাকারে কেন্দ্রে প্রেরণের জন্য সুপারিশ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here