ভাইয়ের সাথে রাত্রিযাপন, ক্ষোভে কাটলেন লিঙ্গ!

0
196
ভাইয়ের সাথে রাত্রিযাপন, ক্ষোভে কাটলেন লিঙ্গ!

ভাইয়ের সাথে রাত্রিযাপন, ক্ষোভে কাটলেন লিঙ্গ! জিহান ও রীনা, মামাতো-ফুফাতো ভাইবোন। দীর্ঘদিন ধরে প্রেম করছিল দু’জন। দু’জনেই ছিল বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে আবদ্ধ। কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে সম্প্রতি অন্যত্র বিয়ে করে জিহান। এতে ক্ষুব্ধ হয় প্রেমিকা রীনা। অতঃপর প্রেমিকের বিশেষাঙ্গ কেটে দেন তিনি।

শুক্রবার রাতে শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার বকচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এরই মধ্যে ওই তরুণীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গুরুতর আহতাবস্থায় ভুক্তভোগী ওই যুবককে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোখলেছুর রহমান গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, জিহান (২৭) শ্রীবরদী উপজেলার ষাইট কাঁকড়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে। বকচর গ্রামের আশরাফ আলীর মেয়ে ও তারই ফুফাতো বোন রীনার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক ছিল তার। সম্প্রতি জিহান রীনাকে বিয়ে না করে পারিবারিকভাবে অন্যত্র বিয়ে করে। এতে ভীষণ ক্ষুব্ধ হয় রীনা।

শুক্রবার রাতে রীনা তার সাবেক প্রেমিক ও মামাতো ভাই জিহানকে নিজ বাড়িতে ডেকে নেয়। একপর্যায়ে তার সঙ্গে মেলামেশা করতে গিয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জিহানের বিশেষাঙ্গ কেটে দেয়। এ সময় তার চিৎকারে বাড়ির লোকজন ছুটে আসে এবং তাকে উদ্ধার করে শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এদিকে, এই ঘটনার পরপরই পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অভিযুক্ত তরুণী রীনাকে আটক করে। এ সময় রীনা অচেতন হয়ে পড়লে, পুলিশ পাহারায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় পরে তরুণের বাবা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে আটক তরুণীকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

এ বিষয়ে শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোখলেসুর রহমান বলেন, ‘এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলার পর পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here