লকডাউনে হৃতিকের বাড়িতে সুজান খান

0
60
লকডাউনে হৃতিকের বাড়িতে সুজান খান

আফজালুর ফেরদৌস রুমনঃ করোনা মোকাবেলার উপায় হিসেবে ঘনবসতিপূর্ণ দেশ ভারতে ২১ দিনের লকডাউন চলছে। প্রতিটা নাগরিকদের যার যার নিজের বাসায় থাকার নির্দেশ দিয়েছে দেরশটির কেন্দ্রীয় এবং রাজ্যে সরকার।

নিয়মিত রুটিন বন্ধ করে দিয়ে টানা ২১ টি দিন ঘরে থাকাটা কিছুটা অসুবিধা বা কষ্টের কারন সবার জন্যই। তবে জীবন বাচাতে, সুস্থ থাকার জন্য এটুকু মেনে নিয়েই বাসাতেই অবস্থান করছেন সবাই। বিশেষ করে বলিউডের সব তারকাই হোম কোয়ারেন্টাইন পালন করছেন।

দুনিয়াতে আমাদের কাছে আমাদের পরিবার, বাবা-মা, সন্তান যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সেটা এই কোয়ারেন্টাইন সময়ে আরো একবার প্রমানিত হলো। ব্যক্তিগত নানা অপছন্দ বা মনের অমিল থাকলেও সংকটের মুহূর্তে পরিবারকে এক থাকতে হবে, সবার জন্য প্রার্থনা করে সময় কাটাতে হবে জীবনের এই চরম সত্যটাই এটা আরেকবার প্রমান করলেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা হৃতিক রোশান এবং তার প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খান।

লকডাউন ঘোষনার দিনই ডিভোর্স হয়ে যাবার পরেও এই লম্বা সময়ে যেনো দুই ছেলে বাবা অথবা মা কারো জন্যই দুরত্বের কষ্ট না পায় তাই দুই ছেলের কথা ভেবে এবং কথা রাখতেই প্রাক্তন স্বামী হৃতিকের বাসায় ২১ দিনের এই কঠিন সময়টাতে একত্রে থাকতে চলে এসেছেন তিনি। প্রেম করে বিয়ে করেছিলেন হৃতিক-সুজান। বলিউডের অন্যতম আর্দশ কাপল হিসেবে তারা সকলের কাছে জনপ্রিয়ও ছিলেন। সংসার আলো করে এসেছিল দুটি পুত্র সন্তান।

সবকিছুই রুপকথার গল্পের মতোই চলছিল। তবে হঠাৎ করেই নিজেদের মধ্যে মানসিক ভাবে দুরত্ব তৈরী হয়েছিল। তারপর প্রায় ১৪ বছরের সাজানো বিয়ে থেকে বিচ্ছেদ, তবে বিচ্ছেদের সময়টাতেও কেউ কাউকে দোষারোপ বা কোন অভিযোগ না করে শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে এগিয়ে গিয়েছিলেন।

ডিভোর্স হবার পরে দুজনেই আলাদাভাবে দুই ছেলেকে নিয়ে ঘুরেছেন, সময় দিয়েছেন। বিভিন্ন সময় সেসব সুন্দর মূহুর্তের নানা ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করেছেন। তবে লকডাউনের সময় সুজান খানের সাবেক স্বামীর বাড়িতে চলে আসাটা বেশ সারপ্রাইজিং ছিল একথা বলতেই হয়।

এমনকি কয়েকদিন আগে বাড়িতে থাকা অবস্থায় সুজান খানের একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে হৃতিক রোশান লিখেছেন যে- ধন্যবাদ বা কৃতজ্ঞতা যতটাই জানাই সেটাই কম হয়ে যাবে। আমাদের দুই সন্তানের জন্য সুজান মা হিসেবে এতো সুন্দর একটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে যা তার প্রতি শ্রদ্ধা আরো বেড়ে গেলো। সাফল্য, অর্থ, জেদ বা খ্যাতি এসব আসলেই খুব ঠুনকো, দিনশেষে এটাই সত্য পরিবার আমাদের জীবনে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ধন্যবাদ সুজান, মা হিসেবে তুমি যে অসাধারন তা আবারো প্রমান করার জন্য।

কোয়ারেন্টাইন সময়ের মাঝেই ছেলে রিদানের জন্মদিন ছিল। কেক কাটার সময় দুই পরিবারের অন্য সদস্যদের সাথে ভিডিও কলে যুক্ত হয়ে দুই ছেলেকে একসাথে নিয়ে ভিডিওতে দেখা দিয়েছেন হৃতিক এবং সুজান। ছেলেদের সাথে সময় কাটানো ছাড়াও বাসায় জিম করে এবং পিয়ানো বাজিয়ে সময় পার করছেন বলিউড সুপারষ্টার।

তবে শুধু হৃতিক নয় তার বাবা রাকেশ রোশান ও একই ছবি টুইট করে সাবেক পুত্রবধূকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন যে, কঠিন সময়টাতে তার পরিবারের পাশে থাকার জন্য। করোনা আমাদের জনজীবনে যতটা প্রভাব ফেলেছে সাম্প্রতিক সময়ে এতোটা ভয়ংকর ভাবে অন্যকিছু ফেলেনি।

তারপরেও একথা মানতেই হবে করোনা পরিস্থিতি আমাদের পরিবারগুলোকে আবারো নতুন করে এক অদ্ভুত মায়ার বাধনে বেধে দিয়ে যাচ্ছে। রুপালি পর্দার তারকারাও যে এই সুত্রের বাইরে না তাও প্রমান হয়ে গেলো। এই মায়া আর এই ভালোবাসা সামনের দিনগুলিতে আমাদের শক্তি আর সাহস হিসেবে সব ধরনের প্রতিকূলতার সাথে যুদ্ধ করার হাতিয়ার হিসেবে কাজ করবে এটাই কামনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here